সমস্ত দায়িত্ব পূরণে দেশ এখন যথাসাধ্য চেষ্টা করছে, সৈনিক ও সেনার নামে পরিচিতি পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী
সমস্ত দায়িত্ব পূরণে দেশ এখন যথাসাধ্য চেষ্টা করছে, সৈনিক ও সেনার নামে পরিচিতি পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

পত্রদূত প্রতিনিধিঃ  সমস্ত দায়িত্ব ও কর্তব্য পূরণে দেশ এখন যথাসাধ্য চেষ্টা করছে, সৈনিক ও সেনার নামে পরিচিতি পাচ্ছে দেশ। বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সোমবার পরাক্রম দিবসে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের ২১টি অনামা দ্বীপের নামকরণ অনুষ্ঠানে অংশ নেন। পরম বীর চক্র জয়ী ২১ জনের নামে দ্বীপগুলির নামকরণ করা হয়েছে। পোর্ট ব্লেয়ারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ২১টি দ্বীপ এখন থেকে পরম বীর চক্র বিজয়ী হিসাবে পরিচিত হবে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এই দিনটিকে স্বাধীনতার অমৃতকালের এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় হিসেবে স্মরণ করবে। এই দ্বীপগুলি আমাদের আগামী প্রজন্মের জন্য চিরন্তন অনুপ্রেরণার জায়গা হয়ে থাকবে। এ জন্য আমি সবাইকে অভিনন্দন জানাই।প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আন্দামানের ভূমি থেকেই প্রথমবার আকাশে মুক্ত তেরঙ্গা উত্তোলন করা হয়েছিল। সেই অভূতপূর্ব আবেগের কণ্ঠ এখনও সেলুলার জেলের কক্ষ থেকে শোনা যায় অপরিসীম বেদনার সঙ্গে। নেতাজির মেমোরিয়াল আমাদের তরুণদের এবং আমাদের আগামী প্রজন্মের জন্য অনুপ্রেরণার ধারাবাহিক উৎস হিসেবে কাজ করবে। প্রধানমন্ত্রীর কথায়, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু এবং পরম বীর চক্র পুরস্কারপ্রাপ্তদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। যে ভূমিতে নেতাজি সর্বপ্রথম ভারতের পতাকা উত্তোলন করেছিলেন সেই ভূমি আজাদ হিন্দ ফৌজের পরাক্রমের জন্য প্রশংসিত। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দিল্লি থেকে বাংলা এবং আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ পর্যন্ত দেশের প্রতিটি অংশই আমাদের মহান নায়ক নেতাজিকে স্মরণ করছে এবং তাঁর সঙ্গে সম্পর্কিত ইতিহাস ও ঐতিহ্য সংরক্ষণ করছে।

আরো পড়ুন