১৮৪ তম রাজ্য ভিত্তিক অনুষ্ঠানের এক আলোচনা চক্রে।
১৮৪ তম রাজ্য ভিত্তিক অনুষ্ঠানের এক আলোচনা  চক্রে।

পত্রদূত:   জাতীয় ঐক্যের জন্য আজও বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় চর্চা অত্যন্ত জরুরী বলে  উল্লেখ করা হয় মঙ্গলবার তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের উদ্যোগে আয়োজিত ১৮৪ তম রাজ্য ভিত্তিক অনুষ্ঠানের এক আলোচনা  চক্রে।  প্রদীপ জ্বালিয়ে রাজ্য ভিত্তিক ১৮৪ তম  বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের জন্মজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে এই শ্রদ্ধাঞ্জলি অনুষ্ঠানে উদ্বোধন করেন গোমতী জিলা পরিষদের সভাধিপতি  স্বপন অধিকারী,এছাড়াও  উপস্থিত ছিলেন পৌর পিতা শীতল চন্দ্র  মজুমদার, তথ্য ও সংস্কৃতিক দপ্তরের অধিকর্তার রতন বিশ্বাস, গোমতী জেলার শিক্ষার অধিকারিক লক্ষণ চন্দ্র দাসবিশিষ্ট লেখক, গবেষক, শিক্ষাবিদ  ডক্টর আশিস কুমার বৈদ্য।বক্তারা বলেন, বন্দেমাতরম এই সংগীতের মধ্যেি সম্পূর্ণ ভারতবর্ষ আজ গর্বিত।এই সংগীত আজ দেশের জাতীয় গান।যা প্রত্যেক ভারতবাসীর বুকে শিহরন তৈরী করে।  বক্তারা আরো বলেন, বঙ্কিমচন্দ্রের আদর্শ অনুসরণ করে ভারত আজ জগৎ সভায়  শ্রেষ্ঠ আসন লাভ করেছে।দেশপ্রীতি  সর্বাপ্রেক্ষা গুরুতর ধর্ম।মানুষের মধ্যে যত প্রকার প্রবৃওি আছে তার মধ্যে সর্বোওম ও মহৎ হচ্ছে দেশপ্রেম তাই দেশ জননী, মানব জননী বা দেশমাতার  সম্মানার্থে এক বানী বিগ্রহ রচনা করে ভারতের নর-নারীকে তথা সমগ্র জাতীকে  বন্দেমাতরম মন্ত্রে দীক্ষিত করেছেন বলে  উল্লেখ করে বক্তারা।রাজ্য সরকার সব মনিষদের সম্মান জানাবে এবং আগামী দিনে ও তাদের প্রতি  শ্রদ্ধা জানিয়ে যুবক-যুবতীদের প্ররনা জাগিয়ে তোলার  ক্ষেত্রে সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে আলোচনায় বক্তাদের বক্তব্যের মধ্যে উঠে এসেছে। অনুষ্ঠানে অঙ্কন প্রতিযোগিতা,ও গানের  প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

আরো পড়ুন