গন্ডাছড়া মহকুমায় প্রতিমাসে চারশো চিয়াশি মেট্রিকটন চালের প্রয়োজন
গন্ডাছড়া মহকুমায় প্রতিমাসে চারশো চিয়াশি মেট্রিকটন চালের প্রয়োজন

পত্রদূত: গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে উত্তর পূর্বাঞ্চলের আসাম রাজ্যের বেশ কিছু অঞ্চল জলমগ্ন। আসামের ওই বন্যার ফলে আসাম -ত্রিপুরার রেল পরিষেবা ব্যবস্থা সম্পূর্ণভাবে ভেঙে পড়ে। এতে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির আশঙ্কা করছিলো রাজ্য সরকার। এই আশংকাতে প্রথমে পেট্রল ডিজেল -এ বি ও সি গুলিতে রেশনিং ব্যবস্থা চালু করে রাজ্য প্রশাসন। রাজ্যের প্রতিটি ছোট বড় বাজারে দ্রব্যমূল্য আশঙ্কা রয়েছে। গন্ডাছড়া মহকুমার সরকারী খাদ্য গোদামে কত দিনের চাল ডাল কেরোসিন মজুত রয়েছে তানিয়ে চিন্তায় মহকুমার মানুষ। শনিবার গন্ডাছড়া মহকুমার আমাদের প্রতিনিধি গন্ডাছড়া মহকুমা খাদ্য গোদামে গিয়ে স্টোর কিপারের সঙ্গে স্বাক্ষাৎ করে খাদ্য মজুতের ব্যাপারে জানতে তিনি জানান গন্ডাছড়া মহকুমায় প্রতিমাসে চারশো চিয়াশি মেট্রিকটন চালের প্রয়োজন হয়। স্টোর কিপার আরো জানান যে চলতি মাস পর্যন্ত তাঁদের ডেলিভারী দেওয়া শেষ হয়ে গিয়েছে। ডেলিভারী শেষ হওয়ার পর শনিবার পর্যন্ত চার থেকে পাঁচ দিনের খাদ্য মজুত রয়েছে। বন্যার কারণে অহেতুক ভয় পাওয়ার কিছুই নেই বলে আশ্বস্ত করতে গিয়ে স্টোর কিপার শ্রী চাকমা বলেন প্রায় প্রতিদিন চার থেকে পাঁচ গাড়ি চাল গন্ডাছড়া খাদ্য গোদামে আসছে। এটা আগামী দিনও জারি থাকবে।

আরো পড়ুন