কোভিড সংক্রমণের ক্ষেত্রে রেকর্ড করলো ত্রিপুরা
কোভিড সংক্রমণের ক্ষেত্রে রেকর্ড করলো ত্রিপুরা

পত্রদূতঃ কোভিড সংক্রমণের ক্ষেত্রে রেকর্ড করলো ত্রিপুরা। গত  ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে নতুন করে করুণা সংক্রমিত হয়েছে  ৯১৬ জনের। মৃত্যু হয়েছে একজনের। করুনার প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউ চলাকালীন সময়ে একদিনে এত বেশি সংখ্যক সংক্রমণ এর আগে আর হয়নি। কিন্তু তৃতীয় ঢেউয়ের শুরুতেই একদিনে সংক্রমনের পুরনো রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড তৈরি হলো। ধারণা করা হচ্ছে আগামী কালই হয়তো সংক্রমণ পৌঁছে যাবে এক হাজারের ঘরে। গত ২৪ ঘন্টায় যে ৯১৬ জন সংক্রমিত হয়েছে তার মধ্যে পশ্চিম জেলায় রয়েছে ৫৫৯ জন। এর থেকেই স্পষ্ট পশ্চিম জেলায় বিশেষ করে আগরতলা পুরো নিগমের এলাকায়  করুনার গোষ্ঠী সংক্রমণ হয়ে গেছে। সংক্রমণের হার ৯ শতাংশ এর উপরে পৌঁছে গেছে। রাজ্য করোনা সংক্রমনের বুলেট গতি দেখে উদ্বিগ্ন স্বাস্থ প্রশাসন। যত দিন যাচ্ছে তত সংক্রমনের তৃতীয় ঢেউ গোটা রাজ্যে প্রভাবশালী হয়ে উঠছে। আর যখন সংক্রমণ চোখ রাঙাতে কোন সুযোগ রাখছে না তখন শুরু হয়েছে জোরদার সচেতনতা। কিন্তু কে মানে কার কথা। অনেক মানুষ উদাসীন ভাবেই চলছে। শুক্রবার আগরতলার পোস্ট অফিস চৌমনীতে মাক্স বিরোধী অভিযানের নামে সদর মহকুমা শাসকের প্রতিনিধিদল।এই দিন জনগনের কাছ থেকে জরিমানা আদায় করেন।  বিশেষ  করে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করা সত্ত্বেও জনগণ অবহেলা করছেন পাশাপাশি প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিনিয়ত যদি আগরতলা শহরের প্রত্যেকটি বাজারে বাজারে কিংবা রাস্তার মোড়ে প্রতিনিয়ত মাক্স বিরোধী অভিযান করতো তাহলে জনগণ কিছুটা হলেও সচেতন হতেন। এই দিন সংবাদমাধ্যম এর মুখোমুখি হয়ে সদর মহকুমা শাসকের আধিকারিক বলেন জনগণ সঠিকভাবে মাক্স ব্যবহার করছেন না যার কারণে সংক্রমণ আরো বাড়তে পারে বলে জানান বাইট রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুই তিন দিন পর পর মাস বিরুদ্ধে অভিযান করছেন যার কারণে জনগণ সেরকমভাবে সচেতনতা পালন করছেন না তার কারণে রাজ্যে সংক্রমণের হার আরও বাড়তে পারে বলে মনে করছেন বুদ্ধিজীবি মহল

আরো পড়ুন