শুধু শেষ হওয়ার অপেক্ষা
শুধু শেষ হওয়ার অপেক্ষা

পত্রদূত প্রতিনিধিঃ ঢাকাঃ হাবিবুর রহমান ।। বাংলাদেশে বহু প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুধু শেষ হওয়ার অপেক্ষায়। পদ্মা সেতুর সাথে রেল যোগাযোগ প্রকল্পের র্নিমাণ কাজ শেষ হলেই মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনে ঢাকা থেকে কলকাতায় পৌঁছনো যাবে মাত্র সাড়ে ৩ ঘন্টাতেই। ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা স্টেশন থেকে ঢাকা পর্যন্ত ১৩৬ কিলোমিটার এবং ঢাকা থেকে কলকাতা ২৫১ কিলোমিটার রেলপথ পদ্মা সেতু দিয়ে পাড়ি দিতে ত্রিপুরার মানুষের জন্য ৫ থেকে ৬ ঘন্টা সময় লাগবে। ভারতের সঙ্গে মোট ৯টি রেলওয়ে ক্রস বর্ডার রয়েছে। যার সবগুলি চালু হলে বাংলাদেশ-ভারতের সঙ্গে ট্রেন যোগাযোগের ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তণ আসবে। উপকৃত হবেন বাংলাদেশ-ভারত উভয় দেশের নাগরিকরা। ইউরোপের ন্যায় বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে আগরতলা বা অন্য কোনও রাজ্যে চলাচল করা যাবে ট্রেনে। যা পর্যাক্রমে মায়ানমার, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়াও সম্প্রসারণ করারও পরিকল্পনা রয়েছে বাংলাদেশ সরকারের। এমনটাই জানিয়েছেন বাংলাদেশের রেলপথ মন্ত্রীক মো. নূরুল ইসলাম সুজন। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের মাওয়া-জাজিরা পয়েন্টে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘের বাংলাদেশের মানুষের স্বপ্নের পদ্মা মূল সেতুর নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ৩০ হাজার ৭৯৩ কোটি ৩১ লাখ টাকা । এর সঙ্গে পদ্মা সেতুর উপর দিয়ে ঢাকা থেকে যশোহর পর্যন্ত রেল যোগাযোগ প্রকল্পের নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৯ হাজার ২৪৬ কোটি কোটি টাকা। মূল সেতুর নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে। সেতুটির সড়ক যোগাযোগ ২০২২ সালের ২৬ মার্চ যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন সেতু সংশ্লিষ্টরা। তবে, পদ্মা রেলসেতু যোগাযোগ প্রকল্পের কাজ দেরিতে শুরু হওয়ায়, নির্মাণ কাজ শেষ হতে ২০২৪ সাল হয়ে যেতে পারে

আরো পড়ুন