এক যুবতীর আত্মহত্যা
এক যুবতীর আত্মহত্যা

পত্রদূত প্রতিনিধিঃ  কল্যাণপুরঃ   কল্যাণপুরে একের পর এক অস্বাভাবিক মৃত্যুর খবরে জনমনে চাঞ্চল্য। গত তিন মাসে 9 জন মহিলা পুরুষের অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘটে কল্যাণপুর থানা এলাকায়। এর পেছনে কি রহস্য লুকিয়ে আছে। তা কিন্তু সময় কথা বলবে। যাইহোক আসা যাক আসল খবরে। গতকাল অর্থাৎ বুড়ি ঘরের রাতে সবাই যখন আনন্দে মশগুল তখনই ঘটলো অনাকাঙ্খিত ঘটনা। কল্যাণপুর থানা এলাকার উত্তর কমলনগরে টিএমসি তে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রী 19 বছর বয়সী সরনালী দাস নিজ ঘরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে বলে জানা যায়। তখন সময় তার বাবা-মা বা নিকটাত্মীয় কেউই বাড়িতে ছিল না বলে সূত্রের খবর। বাড়িতে যখন কেউ ছিলনা তারই ফাঁকে সে ঘরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে।তার বাবার নাম দুলাল দাস কল্যাণপুর বাজারের মৎস্য ব্যবসায়ী। প্রশ্ন উঠছে এই যুবতী মেয়ে কেন আত্মহত্যার পথ বেছে নিল। হতে পারে প্রেম জনিত কারণ বা অন্য কোনো কারণ সবাই বেরিয়ে আসবে পুলিশি তদন্তের মধ্য দিয়ে। ঘটনার খবর পেয়ে গতকাল রাতেই তার বাড়িতে ছুটে যায় কল্যাণপুর থানার পুলিশ।এদিন সকালে তার এক নিকট-আত্মীয় কল্যাণপুর হাসপাতালে সাংবাদিকদের ক্যামেরার সামনে জানায় হতে পারে প্রেম জনিত কারণে সে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। মেয়েকে হারিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে তার মা বাবার নিকট আত্মীয়রা। শেষে পুলিশ কল্যাণপুর হাসপাতালে মৃতদেহ ময়না তদন্ত করে পরিবারের হাতে তুলে দেয়। খবরে জনমনে বেশ চাঞ্চল্য ছড়ায়।

আরো পড়ুন